Bengali BlogTravel Blog

ক্যান্ডি | Kandy (শ্রিলংকার পথে পথে)

ক্যান্ডি এক প্রকার খাবার হিসেবে জানলেও এই নামে একটি শহর আছে শ্রীলংকা তে। ক্যান্ডি শ্রীলংকা এর প্রায় মাঝে অবস্থিত। ক্যান্ডি একদম পাহাড়ের উপরে তাই কলম্বো থেকে যাওয়া আসা করার সময় টা উপভোগ করা যায়।

এখানেত তাপমাত্রা টা বেশি গরম থাকে কিন্তু পাহাড় এলাকা হওয়ায় মাঝে মাঝে বৃষ্টি দেখা যায় তাই সাথে করে ছাড়া / ওয়াটার রেজিস্ট্যান্স ব্যাগ রাখা ভালো। সারাদিন এর ডে ট্রিপ / হাইকিং / ক্লাইম্বিং / বা আউটিং এ বের হলে সান্সক্রিম রাখবেন নাহয় সমস্যা হতে পারে।

কলম্বো / এয়ারপোর্ট থেকে ক্যান্ডি যাবার জন্য বাস / ট্রেন দুটোই আছে। এসি ট্রেন / ইকোনোমি / এক্সপ্রেস / মেইল ট্রেন সব আছে। আর বাস ও একইরকম নরমাল / এসি আছে। তবে আমার কাছে বাস এর ভাড়া অনেক কম লাগছে ট্রেন এর থেকে।

ট্রেন পাহাড় এর ভিতর দিয়ে যায় আর বাস উপর দিয়ে তাই যাওয়া আসার জন্য বাস ট্রেন দুইটাই যদি নিতে পারেন তাইলে দুইরকম মজা পাবেন। কিন্তু খরচ কমাতে চাইলে বেস্ট ওয়ে নরমাল বাস। বাস ভাড়া ১৬০-১৮০ শ্রীলংকান রুপি এর মাঝে।
ক্যান্ডিতে হোটেল / হোস্টেল দুটোই আছে চাইলে অনলাইন বুকিং দিয়ে যেতে পারেন বা গিয়ে বুকিং করতে পারেন। ক্যান্ডি সেন্ট্রাল এর ১-৩ কিলোমিটার এর মাঝে ভালো ভালো হোটেল / হোস্টেল পাবেন।

লোকাল ঘোরাফেরা করার জন্য বাস ব্যাবহার করতে পারেন অনেক কম খরচে। তাছাড়া টুকটুক ও ট্যাক্সি তো আছেই। তবে বাসের ভাড়া অনেক কম, যেখানে টুকটুক ৩০০-৪০০ রুপি যেখানে বাস মাত্র ১৫-২০ রুপি।
খাবার জন্য অনেক ভালো ভালো হোটেল আছে। কিন্তু খাবার খরচ টা একটু বেশি আমার মনে হয়েছে কিন্তু খাবার আর কোয়ালেটি জোশ। নারিকেল তেল দিয়ে রান্না করলেও আমি সহজে বুঝতে পারবেন না তাদের রান্না। আর চাইলে স্ট্রিট ফুড ও ট্রাই করতে পারেন অনেক ভালো খেতে।
ফলমূল এর দাম অনেক কম লাগছে আমার কাছে। নানান ফল পাওয়া যায় ক্যান্ডি তে। ইভেন ফেব্রুয়ারি তে আমি আম তরমুজ বাংগি এগুলা খেয়েছি।
ক্যান্ডি তে ঘোরাঘুরি করার জন্য গ্রুপ গেলে টুকটুক ভাড়া করে নিতে পারেন। আর যদি সলো ট্রাভেল করেন তাইলে বাসে করে ও একটু হেটে আবার বাসে করে এভাবে ঘুরলে খরচ অনেক কমে যাবে নাহয় টুকটুক ভাড়া দিতে নিয়ে আপনার পকেট খালি হয়ে যাবে।

ক্যান্ডি এর দুটি যায়গা বেশি পপুলার :
1) Adam’s Peak বা আদম (আ:) এর পায়ের ছাপ দেখতে যাবার জন্য টুকটুক ভাড়া করে নিতে পারেন বা এর জন্য ট্যুর অপারেটর এর সাথে কথা বলে প্যাকেজ নিতে পারেন। জায়গাটা একদম পাহাড়ের মাথায়।
2) Temple of the Sacred Tooth Relic বা Trample of Tooth. এটাও সেম টুকটুক ভাড়া করে বা বাসে করে যেতে হয়।
তবে এগুলায় বাসে যাওয়া একটু কষ্ট আর সাথে বেশ হাটাহাটি ও করা লাগবে আর বাস খুজতে হবে লোকাল দের সাথে কথা বলে বলে যদিও তারা ইংরেজি বুঝে মোটামুটি তাই খুব সমস্যা না।
আপনি চাইলে ক্যান্ডি লেকে বোটিং করতে পারবেন ভালো লাগবে। সকাল বা বিকেল এই দুই টাইম হলো বোটিং এর জন্য সেরা সময়।
সাথে ক্যান্ডি সিটি ঘুরে দেখতে পারেন। ক্যান্ডি সিটিতে অনেক গুলা মূর্তি আছে আছে পুরানো নতুন বাড়িঘর। বেশ কিছু মসজিদ ও আছে ক্যান্ডি তে।
২-৩ দিন সময় নিয়ে আসলে ক্যান্ডি ঘুরে দেখা সম্ভব, তবে যতো বেশি সময় ততো মজা।
হ্যাপি ট্রাভেলিং 😃

Post by : Muhammad Atikur Rahman
অরিজিনাল লেখাঃ https://helloatik.blogspot.com/2019/02/kandy.html

ধন্যবাদ আতিক এত সুন্দর একটি লেখার জন্য।

Related posts
Bengali Blog

অজানা দেশ পরিচিতিঃ টুভালু (Voa for Bangladeshi Passport)

Bengali Blog

ইথিওপিয়া - প্রাচীনতম মানুষের দেশ.

Bengali BlogTravel Blog

পার্টি সিটি গোয়া ভ্রমন

Bengali BlogTravel Blog

নাগাল্যান্ড ভ্রমনের আদ্যপান্ত।

Sign up for our Newsletter and
stay informed
[mc4wp_form id="14"]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *