Bengali BlogTravel Blog

গরিবের নেপাল ভ্রমন (পর্ব ২)

নেপালের দ্বিতীয় দিন। রাজধানীর কাঠমান্ডুর থামেল নামক জায়গায় কোন একটা সস্তা হোস্টেলের বেড থেকে উঠলাম। বাইরে বেশ আলো আর প্রকৃতিটা ফ্রেশ লাগছিল ইচ্ছা করছিল বাইরে গিয়ে ইচ্ছে মত শ্বাস-নিশ্বাস নেই। কিন্তু বাইরে এখন ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আমি গরমকে তেমন ভয় না পেলেও শিতে আমার খুব ভয়। অতিরিক্ত ঠান্ডায় আমার বরাবর অনেকরকম সমস্যা হয়। যদিও দেশ থেকে বিশাল জ্যাকেট,টুপি,হ্যান্ড গ্লাবস নিয়ে গেছি।

মন মানে না, সেইগুলো পড়েই বাইরে বের হলাম।  আমার ভ্রমনের একটা বড় গোল থাকে ঐ দেশের সকাল দেখা। সকাল সব জায়গায়ই সুন্দর। যাইহোক, বের হলাম। শীত ভালভাবেই টের পাচ্চছিলাম। পাশের শপে থাকা চা আর রুটি খেলাম দাম ১৩ নেপালি রুপি। থামেলে হাটতে বেশ লাগল। দেখলাম নেপালিদের থেকে আমার মত বিদেশিরাই বেশি ঘোরাঘুরি করছে। একটু ঘুরে হোস্টেলে ফিরে যাই। রুমে আমি ছাড়াও ৭ জন ছিল, তাদের ৫ জন ভিয়েতনাম থেকে আর ২ জন ব্রিটিশ মেয়ে। তাদের সাথে কথা বলতে বলতে হোস্টেল ক্যাফেটেরিয়াতে খাবার শেষ করে নিলাম। হোস্টেল ক্যাফেটেরিয়াতে খাবারের দাম বাইরের থেকে একটু বেশি তবু আমি ত বাঙালি আড্ডাটা মিস করতে পারি না। খাবার শেষে আমার এক নেপালি বন্ধু যে কিনা আমার ট্রাভেল ফলো করে সে একটা ম্যাসেজ দিল। আমি জানতামি না যে সে নেপালি। তার নাম দিপ শাহ। বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খানের ফ্যান বলে নামের সাথে শাহ যুক্ত করেছে যেটা আমারো বেশ ভাল লাগল। যাইহোক, সে বল্ল আমি তোমার হোস্টেলে আসছি। তুমি রেডি থাকো আমার স্কুটিতে করে তোমাকে ঘুরাব। ভিন দেশে কোন একজন বন্ধু আসবে এটা ভেবে অনেক আনন্দ লাগল। তার সাথে আমি একজন বাজেট ট্রাভেলার হিসেবে অনেক খুশি হচ্ছিলাম যে আমার অনেক টাকা বেচে গেল😂 । বন্ধু হোস্টেলে আসল আমরা হাল্কা কিছু খেয়ে বের হলাম ঘুরতে। আমাকে যারা চিনেন না তাদের জন্য বলি,আমি ভ্রমন করি — না দেখাকে দেখার জন্য,লোকাল মানুষদের সাথে মেশার জন্য, ঐ দেশের সংস্কৃতিকে অবলোকন করার জন্য। ৬ দিন কাঠমান্ডুতে থেকেও আমি অনেক ট্যুরিস্ট পয়েন্ট দেখি নি। আমাকে পাগল বলবেন কিন্তু আমি এমনই। যাইহোক, বন্ধু এলে বেরিয়ে পড়লাম কাঠমান্ডু ঘুরতে। চলে গেলাম দরবার স্কয়ার এ

দরবার স্কয়ার এ অনেক আগের ঘর-বাড়ি আর দালান কোঠা আছে। যত নাম ডাক শুনেছেন এতটাও সুন্দর না যদিও নেপালে অনেক বড় একটা ভুমিকম্পে এইখানে থাকা দালানগুলোর অনেক ক্ষতি হয়,  সেই সময় হয়ত ভালই লাগত। যাইহোক, কাঠমান্ডু তে ঘুরতে বের হলে অবশ্যই সেই সকালে পড়া বড় জ্যাকেট পড়ে বের হবেন না। কারন দুপুরের দিকে অসম্ভব গরম পরে। দরবার স্কয়ার দেখার পরে ফিরে আসলাম হোস্টেলে। দুপুরের খাবার খেলাম ৪ টায়। থামেল এর যে এরিয়াতে ট্রাভেলাররা থাকেন সেই অঞ্চলের অনেক জায়গায় গাড়ি নিয়ে যাওয়া যায় না। মানে পায়ে হেটে ঐটুক জায়গা যেতে হয়। সিলেক্টেড জায়গায় গাড়ি পারকিং করে পায়ে হেটে যেতে হয়েছে আমাদের। দুপুরে খেয়ে বের হলাম কাঠমান্ডু ভ্যালি দেখতে

  এই জায়গায় কম ট্রাভেলাররাই ঘুরতে যায় আর আমি তাদের জন্য খুবই দুখিঃত। কাঠমান্ডু ভ্যালি থেকে কাঠামান্ডু শহরের যেই ভিউ দেখা যায় সেটা সত্যিই চমকপ্রদ। কোন ভীর নেই। শান্তিমত প্রান ভরে দেখে স্ট্রিট ফুড খেতে গেলাম। আমি স্ট্রিট ফুড খুব বেশ পছন্দ করি। আমাকে অনেকেই বলেছে নেপালি স্টিট ফুড তেমন ভাল না। আসলে এটা যার যার রুচির ব্যপার। আমার বেশ ভাল লেগেছে। স্টিম চিকেন মোমো খেতে দারুন। আর স্ট্রিট ফুডের দাম যেকোন দেশে তুলনামূলকভাবে অনেক কম। যারা এক্সট্রিম বাজেট ট্রিপে যাবেন তারা যেকোন দেশেই স্ট্রিট ফুড খেয়ে আরামসে দিন পার করে দিতে পারেন। তবে  আমার দিন শেষে প্রোপার খাবার খেতেই হয়। যাইহোক, দেখতে দেখতে ৭টা বেজে গেছে সাথে আমার জীবনের ১২ টা। মানে সন্ধ্যা ৭ টার মধ্যেই তাপমাত্রা ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যদিও আমি জানুয়ারি মাসে গিয়েছি বলেই এত ঠান্ডা।  ৭ টার সময় ফিরে এলাম হোস্টেলে। পায়ে হাটতে ভালবাসি আমি। হোস্টেলের নাম  Wander Thirst. একদম থামেলের বুকেই। ভাড়া ৩০০ টাকা। সাথে এসি আর ওয়াইফাই। ক্যাফেটেরিয়া আছে। শুধু ডোরম বেডে থাকতে হবে একরুমে ৮ জন এই আর কি। হোস্টেলে ফিরে রুমে থাকা বন্ধুদের সাথে রি-ইউনিয়ন হয়ে গেলো😂। ডিনার সেরে নিলাম ৮ টার মধ্যেই। চিকেন বিরিয়ানি। বেশ আমেজ করে খেলাম। এরপর হোস্টেলের কমনরুম এরিয়াতে হোস্টেল কর্তৃপক্ষ বড় ক্রিনে মুভি ছাড়ল (কাসাব্লাংকা)

মুভি দেখতে দেখতে অনেক বেজে গেল।  মোটেও ক্লান্ত নই। কারন  আমি রাশ ট্রাভেল করি না। পাগলের মত এক স্থান থেকে অন্য স্থান দেখে আবার অন্য স্থানের জন্য ছুটি না। লোকালদের সাথে প্রচুর কথা হল আজ। স্ট্রিট ফুডের দোকানির কাছ থেকে নেপালিদের সম্পর্কে অনেক কিছু জানলাম সে নিয়ে নাহয় একটা আলাদা লেখা দিব। নেপালের দ্বিতীয় দিন আর ঘুরে দেখার প্রথম দিন সফল বলা যায়। মুভি দেখতে দেখতে ১০ টার উপরে বাজে। ঘুমাতে গেলাম। বেশ ঠান্ডা। নাহ কোন এলার্ম সেট করি নি। নেই কোন তারাহুরো😍। 
(চলবে)

My tag line.
Related posts
Bengali Blog

ইথিওপিয়া - প্রাচীনতম মানুষের দেশ.

Bengali BlogTravel Blog

পার্টি সিটি গোয়া ভ্রমন

Bengali BlogTravel Blog

নাগাল্যান্ড ভ্রমনের আদ্যপান্ত।

English BlogTravel Blog

Trip to Delhi>Agra>Jaipur Triangle.

Sign up for our Newsletter and
stay informed

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares